Home কমলগঞ্জ কমলগঞ্জে টিসিবির পণ্য ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

কমলগঞ্জে টিসিবির পণ্য ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ

99
0
SHARE

সালাহ্উদ্দিন শুভ:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের মাধবপুর ইউনিয়নের পাত্রখোলা চা বাগান বাজারে ন্যায্যমূল্যে টিসিবির পণ্য বিক্রয় শেষে ফেরার পথে ভোজ্য তেল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে এক বখাটে ট্রাকটি আটকিয়ে রাখে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করলে নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে ইউপি চেয়ারম্যান বখাটের হাত থেকে আটকাপড়া টিসিবির পণ্যসহ ডিলার ও ট্রাকটি উদ্ধার করেন। সোমবার (৪ মে) সন্ধ্যায় এ ঘটনাটি ঘটে।
টিসিবির ডিলার শমশেরনগরস্থ হাসান এন্টারপ্রাইজের প্রতিনিধি ইলিয়াছুর রহমান অভিযোগ করে বলেন, সোমবার বিকালে তারা পাত্রখোলা চা বাগান বাজারে টিসিবির পণ্য বিক্রি করেন। এসময় আরাফাত মিয়া নামের এক যুবক একবার টিসিবির পণ্য ক্রয় করে নিয়ে যায়। সে আবার ফিরে আসে বাড়তি পণ্য কিনে নিতে চাইলে তাকে দেওয়া হয়নি। পরে পাত্রখোলা চা বাগানে পণ্য বিক্রি করে মাধবপুর চা বাগানে বিক্রির জন্য রওয়ানা দিলে যুবক আরাফাত পথিমধ্যে ট্রাক আটিকয়ে বোজ্য তেলের কার্টুন ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে বিক্রয়কারী কর্মচারীদের নাজেহাল ও ট্রাকের চালককে নাজেহাল করে ট্রাকের চাবি ছিনিয়ে নেয়। বিষয়টি তাৎক্ষনিক মুঠোফোনে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহিত করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে মাদবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু দ্রুত এসে মদনমোহনপুর চা বাগান এলাকা থেকে টিসিবির পন্যবাহী ট্রাক উদ্ধার করেন।
তবে অভিযুক্ত পাত্রখোলা চা বাগানের যুবক আরাফাত মিয়া বলেন, তিনি লাইনে দাঁড়িয়ে প্রথমে চাহিদা মত পণ্য কিনে নিয়েছেন। পরে তার মায়ের অনুরোধে আবার কিছু চিনি কিনে নিতে আসলে বিক্রেতারা তাকে নতুন করে পণ্য দেয়নি। তবে অন্যান্য ক্রেতার কাছে আবার নতুন করে টিসিবির পণ্য বিক্রি করা হয়। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে বিক্রেতাদের সাথে তার বাকবিতন্ডা হয়েছে। এজন্য ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু তাকে শাসন করেছেন। আরাফাত আরও বলেন, তিনি ভোজ্য তেল ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেননি, কাউকে নাজেহাল করেননি এমনকি ট্রাকও আটকাননি। তার উপর আরোপিত অভিযোহ সঠিক নয় বলে দাবি করেন।
মাধবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার কানু বলেন, পণ্য বিক্রি নিয়ে পাত্রখোলা চা বাগানের যুবক আরাফাতের সাথে টিসিবির পন্য বিক্রয়কারীর বাকবিতন্ডা হয়ে উত্তেজনার এক পর্যায়ে পণ্যবাহী ট্রাকটি মদনমোহনপুর চা বাগান এলাকায় আটকা ছিল তিনি ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ততে শাসিয়ে আবার পণ্যবাহী ট্রাকটি মাধবপুরের দিকে ছাড়িয়ে দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here