1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৫:০০ অপরাহ্ন

সিংড়ায় শেষ মুর্হুতে ছুটছেন সবাই কোরবানীর হাটে

শহিদুল ইসলাম সুইট সিংড়া(নাটের) প্রতিনিধি দৈনিক শিরোমণিঃ
  • আপডেট : সোমবার, ১৯ জুলাই, ২০২১

শহিদুল ইসলাম সুইট সিংড়া নাটোর প্রতিনিধি দৈনিক শিরোমণিঃ
নাটেরের সিংড়া উপজেলায় শেষ মুর্হুতে কোরবানীর পশুর হাটেই ভিড় করছেন ক্রেতা বিক্রেতারা। অনলাইনে বিক্রি কম হওয়ায় তারা ছুটছেন পশুর হাটে। উপজেলা প্রাণি সম্পদ অধিদপ্তর থেকে জানা যায়, উপজেলার কালিগঞ্জ সপ্তাহের রবিবার এবং সোমবার পৌরসভার সিংড়া হাট কোরবানীর পশুর জন্য নির্ধারন করা হয়েছে। প্রশাসনের তত্বাধায়নে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ দুটি হাট বসবে । কিন্তু প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই গত ১৪ জুলাই বুধবার ও ১৮ জুলাই রবিার উপজেলার বিয়াশ হাটে কোরবানীর পশুর হাট বসে। ১৫ জুলাই বৃহষ্পতিবার ও ১৮ জুলাই রবিার বসে বিলদহরের হাটে কোরবানীর ছাগল হাট। ১৬ জুলাই শুক্রবার জামতলীর হাটেও কোরবানীর পশুর হাট বসানোর জন্য মাইকিং করা হয়। পরে বৃষ্টির কারনে হাট ভেঙ্গে যায়। ১৯ জুলাই সোমবার সিংড়া পৌরসভার পশুর হাটই ছিল এই উপজেলার শেষ হাট। শেষ মুর্হুতের এই হাটে ছিল উপচে পরা ভিড়। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, হাট কমিটির পক্ষ থেকে মাইকিং করে সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাটে প্রবেশ করার কথা বলা হচ্ছে। প্রকৃত পক্ষে স্বাস্থ্যবিধি মানার কোন বালাই ছিলনা হাটে। ক্রেতা বিক্রেতাদের ঠাসা ঠাসির ভিড়ে শুরু হয় কেনা বেচা। অনেকের মুখেই মাস্ক ছিলনা। আবার যাদের মাস্ক ছিল তাদের বেশির ভাগই ছিল মুখের থুতনির নীচে ঝুলানো। দুপুর ১২টায় হাটে প্রবেশ করেন পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস। এসময় তিনি সবাইকে মাস্ক পরার আহবান জানান। যাদের মুখে মাস্ক ছিলনা তাদের মাস্ক পরিয়ে দেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে কেনা বেচা করার জন্য সাইকে অনুরোধ করেন। হাটে প্রচুর গরু ও ছাগলের আমদানী হলেও ক্রেতা কম থাকায় হাটে বিক্রিও ছিল কম। উপজেলার চৌগ্রাম থেকে হাটে আসা মুকবেল নামের এক ক্ষুদে খামারী বলেন,আমার খামারে ৬টি দেশী জাতের গরু মোটা তাজা করেছি। অনলাইনে গরুর ছবি ও সম্ভাব্য দাম,ঠিকানা পাঠিয়ে ছিলাম। ১৫ দিন পর মাত্র ১টি গরু বিক্রয় করতে পেরেছি। তাই বাকি গরু নিয়ে এই হাটে এসেছি। কলম পুন্ডরী গ্রামের আলহাজ আকন্দ বলেন, আমার ৭টি গরু অনলাইনের কোরবানীর পশুর হাটে দিয়েছিলাম। বিক্রি হয়নি। হাটে এনেছি ৪টি গরু। দুটো বিক্রয় করেছি। ঈদের সময় কম। আমাদের এলাকায় এটাই ঈদের শেষ হাট। বাকি গরু বিক্রি নিয়ে চিন্তায় আছি।উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসার মোঃ খুরসিদ আলম বলেন, উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও পৌরসভা সহ এবছর ক্ষুদে খামার ও পারিবারিক খামারে ৪১ হাজার গরু কোরবানীর জন্য প্রস্তুত করা হয়েছিল। আজ থেকে ২৫ দিন আগে সিংড়া কোরবানীর পশুর হাট নামে ফেসবুক পেইজ খোলা হয়েছে। সেখানে খামারীদের গরু ও ছাগলের ছবি,নাম,ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর আপলোড করা হয়েছে। অনলাইনে কেনা বেচা থাকলেও অনেকেই হাটে গিয়ে দেখে শুনে কেনা বেচায় আগ্রহী।

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
3 views

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি