1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৫০ অপরাহ্ন

গৃহকর্মীর কাছ থেকে ধার করে সংসার চালাতেন অমিতাভ বচ্চন!

রিপোর্টার
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২২

ভারতীয় চলচ্চিত্র শিল্পের অন্যতম কিংবদন্তি অভিনেতাদের একজন অমিতাভ বচ্চন। কয়েক দশক ধরে অভিনয়ে মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন গুণী এই অভিনেতা। পেয়েছেন জনপ্রিয়তা, হয়েছেন বিত্তবানদের একজন।

তবে এক সময় বিশাল অর্থ সংকটে ভুগেছেন ডন’খ্যাত এই অভিনেতা। তিনি এতোটাই সংকটে ছিলেন যে পরিবারের খরচ চালানো তার জন্য কষ্টকর হয়ে পড়েছিল!

এক সাক্ষাৎকারে এমন তথ্যই দিয়েছেন অমিতাভ বচ্চনের ছেলে অভিষেক বচ্চন। অভিনেতা বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পড়াশোনা করার সময় তিনি তার অভিনয়ের কোর্স মাঝপথে ছেড়ে দিয়েছিলেন। যেন দেশে ফিরে এসে তার বাবাকে সমর্থন করতে পারেন।

‘আমার পরিবার একটি কঠিন আর্থিক সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছিল। আমি কেবল অনুভব করেছি ছেলে হিসেবে আমার উচিত বাবার সঙ্গে থাকা। যদিও আমি সেই সময়ে পরিবারকে আর্থিকভাবে সাহায্য করার যোগ্যতা অর্জন করতে পারিনি’- যোগ করেন অভিষেক।

তিনি আরও বলেন, ‘‘আমি বোস্টনে থাকি তখন। আর আমার বাবা অর্থ সংকটে। আমার বাবা জানেন না তিনি কীভাবে রাতের খাবার খাবেন। টেবিলে খাবার রাখার জন্য তাকে তার কর্মীদের কাছ থেকে টাকা ধার করতে হয়েছিল। আমি তাকে কল দিয়ে বলি, ‘বাবা, আমি মনে করি কলেজ ছেড়ে আমার চলে আসা উচিত। চেষ্টা করবো তোমাকে যে কোনো উপায়ে সাহায্য করার। অন্তত তুমি জানবে, তোমার ছেলে তোমার পাশে আছে এবং সে তোমার জন্য আছে।’

আমার বাবা পড়াশোনা চালিয়ে যেতে বলেছিলেন। আজও সেসব দিন মনে পড়ে বারবার।’’

Facebook Comments
Print Friendly, PDF & Email
0 views

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি