1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : গোলাম সরোয়ার মেহেদী : গোলাম সরোয়ার মেহেদী বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : সাইদ হাসান কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি : সাইদ হাসান কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
  4. [email protected] : মোঃ এরফান হোসেন কক্সবাজার প্রতিনিধি : মোঃ এরফান হোছাইন কক্সবাজার প্রতিনিধি
  5. [email protected] : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  7. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  8. [email protected] : Shahriar Ahmed : Shahriar Ahmed
  9. [email protected] : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : দেলোয়ার ইবনে হোসেন নোয়াখালী প্রতিনিধি : দেলোয়ার ইবনে হোসেন নোয়াখালী প্রতিনিধি
  13. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  14. [email protected] : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান
  15. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০২:৪৯ অপরাহ্ন

সর্বজনের শ্রদ্ধেয় শিক্ষক তারাপদ না ফেরার দেশে চলে গেলেন

রিপোর্টার
  • আপডেট : শনিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২১
  • ৫৬ বার দেখা হয়েছে
রবিউল হাসান রাজিব,ফরিদপুর দৈনিক শিরোমণিঃ
করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে গেলেন ফরিদপুরের র্সবজনশ্রদ্ধেয়, শিক্ষাবিদ, জ্ঞানের আলোর পথিকৃৎ, সাংবাদিক  জগদীশ চন্দ্র ঘোষ (তারাপদ স্যার)।
২রা মার্চ শুক্রবার দিবাগত রাত ৮টা ৪৫ মিনিটের দিকে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এর আইসিইউতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর।
এদিকে প্রবীণ শিক্ষক ও সাংবাদিক জগদীশ চন্দ্র ঘোষের মৃত্যুতে ফরিদপুরে এক শোকের ছায়া নেমে এসেছে। তার মৃত্যুতে ফরিদপুর জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, আওয়ামীলীগের বিভিন্ন অংঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, ফরিদপুরে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দসহ সব শ্রেনী পেশার মানুষ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
শ্রী জগদীশ চন্দ্র ঘোষ (তারাপদ) এর মৃত্যুতে ফরিদপুর প্রেসক্লাবের সামনে শনিবার সকাল ১০ টায় শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জেলা প্রশাসন, পুলিশ সুপার, উপজেলা পরিষদ, ফরিদপুর প্রেসক্লাব, মেয়র ফরিদপুর পৌরসভা, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ, নাগরিক মঞ্চ, সমকাল সুহৃদ সমাবেশ, প্রথম আলো বন্ধুসভা, উদীচী ফরিদপুর, ফরিদপুর উচ্চ বিদ্যালয়, ফরিদপুর টাউন, থিয়েটার, ফুলকি ফরিদপুর, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক অতুল সরকার, পুলিশ সুপার আলিমুজ্জামান (বিপিএম সেবা), পৌর মেয়র অমিতাভ বোস, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শামসুল হক ভোলা, সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোঃ মোশার্রফ আলী, ফরিদপুর জেলা আওয়ামী মহিলা লীগের সদস্য সচিব আইভি মাসুদ, ফরিদপুর প্রেসক্লাব এর সভাপতি মোঃ কবিরুল ইসলাম সিদ্দিকী, ফরিদপুর ডায়াবেটিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আ স ম জাহাঙ্গীর চৌধুরী টিটু, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল ফয়েজ শাহনেওয়াজ, জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুদাররেছ আলী ইছা, অধ্যাপক রেজভী জামান প্রমুখ।
এর আগে তার লাশ প্রেসক্লাবে এসে পৌছালে শ্রী রামকৃষ্ণ মঠের সাধুরা পবিত্র বেদমন্ত্র ও শ্রীমদ্ভগবত গীতা পাঠ করেন। প্রসঙ্গত গত ২৯ মার্চ জাগদীশ চন্দ্র ঘোষ অসুস্থতাজনিত কারণে ডায়াবেটিক হাসপাতালে ভর্তি হলে তার নমুনা পরীক্ষায় করোনা সনাক্ত হয়। পরে ৩১ মার্চ তাকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হলে শুক্রবার রাত ৮টা ৪৫ মিনিটের দিকে তিনি মারা যান। এদিকে সর্বজন শ্রদ্ধেয় তারাপদ স্যারকে ধর্ম বর্ন নির্বিশেষে সকলের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে অম্বিকাপুর গোবিন্দপুর পৌর মহাশ্মশান ঘাটে তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়।
উল্লেখ্য জগদীশ চন্দ্র ঘোষের জন্ম মানিকগঞ্জের কাঞ্চনপুর গ্রামে ১৯২৯ সালের ৮ আগষ্ট। এরপর থেকে তিন ও তার পরিবার বাস করতেন সদর উপজেলার ঈশান গোপালপুরে। বর্তমানে তিনি শহরের ঝিলটুলীতে বসবাস করতেন। পিতার নাম যোগেশ চন্দ্র ঘোষ। প্রথম জীবনে পোস্ট মাস্টারের চাকরি নিলেও পরে শিক্ষকতা পেশা বেছে নেন। ১৯৬৮ সালে পাকিস্তান অবজারভার পত্রিকার মাধ্যমে সাংবাদিকতায় যোগ দেন। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ঈশান গোপালপুরের গণহত্যায় নিহত ২৮ জনের মধ্যে তাঁর বাবা যোগেশ চন্দ্র ঘোষ, ভাই গৌর গোপাল ঘোষও ছিলেন।
তিনি চার দশকের বেশি সময় ধরে ইংরেজি দৈনিক অবজারভারে ফরিদপুর জেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি চিরকুমার ছিলেন। এছাড়া সকল সংগঠনের সাথে তার নিবিড় সম্পর্ক ছিল। এবং ফরিদপুরবাসী এক ডাকে তাকে তারাপদ স্যার নামে অভিহিত করতেন। তার মৃত্যুতে ফরিদপুরবাসী একজন বড় ধরনের অবিভাবক হারালো বলে সচেতন মহল মনে করে।
Facebook Comments

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক শিরোমনি