1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : গোলাম সরোয়ার মেহেদী : গোলাম সরোয়ার মেহেদী বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : সাইদ হাসান কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি : সাইদ হাসান কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
  4. [email protected] : মোঃ এরফান হোসেন কক্সবাজার প্রতিনিধি : মোঃ এরফান হোছাইন কক্সবাজার প্রতিনিধি
  5. [email protected] : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : সাখাওয়াত হোসেন সাকা চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান : রাকিব হাসান হাকন্দ ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  7. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  8. [email protected] : Shahriar Ahmed : Shahriar Ahmed
  9. [email protected] : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : জুবায়ের চৌধুরী কাজল ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : শাহ্ জামাল ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : দেলোয়ার ইবনে হোসেন নোয়াখালী প্রতিনিধি : দেলোয়ার ইবনে হোসেন নোয়াখালী প্রতিনিধি
  13. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  14. [email protected] : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান : এম এ সালাম রুবেল রংপুর ব্যুরো প্রধান
  15. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৩:২৭ অপরাহ্ন

তানোরে আ.লীগের বিদ্রোহীদের নিয়ে সমালোচনা

রিপোর্টার
  • আপডেট : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৭৫ বার দেখা হয়েছে
সারোয়ার হোসেন, রাজশাহীঃ রাজশাহীর তানোরে আওয়ামী লীগ বিরোধী নবনির্বাচিত মেয়র প্রার্থীদের নিয়ে চলছে আওয়ামী লীগে সংবর্ধনার ধুম। সেই সাথে থেমে নেই আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। এতে করে তানোরে বর্তমান আওয়ামী লীগের অবস্থা হ য ব র ল হয়ে পড়েছে। আওয়ামী লীগ দলীয় সূত্রে জানা গেছে, তৃতীয় ধাপে হওয়া পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থীদের বিরুদ্ধে দলের ভিতরে কোন্দল সৃষ্টি করে যারা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়ে নির্বাচন করেছে তাদের ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছ।
এমনকি যারা দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থীকে সহযোগিতা করেছেন তাদের বিরুদ্ধেও ইতিমধ্যে কেন্দ্র থেকে সাংগঠনিক ব্যবস্থার জন্য চিঠি দেয়া হয়েছে। অথচ কেন্দ্রীয় কমিটির কঠোর নির্দেশ অমান্য করে রাজশাহীর তানোর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনের নেতৃত্বে চলছে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীকে নিয়ে উপজেলা জুড়ে সংবর্ধনা ও মিষ্টি ছোড়াছুড়ির ধুম। ফলে, একজন আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীকে নিয়ে প্রকার্শে মিষ্টি খাওয়া খায়ি ও আওয়ামী লীগের ব্যানারে বিদ্রোহী প্রার্থীকে সংবর্ধনা দেওয়া নিয়ে এলাকা জুড়ে বইছে তুলকালাম ও সমালোচনার ঝড়।
সম্প্রতি, এমন চাঞ্চল্যকর সংবর্ধনার ঘটনাটি ঘটেছে, ২০ফেব্রুয়ারী শনিবার দুপুরে উপজেলার দুবইল সাহাপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। জানা গেছে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক পরিপন্থী কাজ করে গোলাম রাব্বানী তার ছোট ভাই শরিফুল ইসলামকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত পদপ্রার্থীর বিরুদ্ধে ওয়াকার্স পাটির দলীয় প্রতীক হাতুড়ি মার্কা নিয়ে দাঁড় করিয়ে ছিলেন। তবে সেই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর কাছে বিপুল পরিমাণ ভোটে পরাজিত হন শরিফুল ইসলাম। তার পরেও সদ্য তৃতীয় ধাপে তানোর মুন্ডুমালা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদুর রহমানকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জগ প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী করে দাঁড়  করান উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী।
আর সেই নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে ৬১ভোটে পরাজিত হন আওয়ামী লীগের পদপ্রার্থী মুন্ডুমালা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমির হোসেন আমিন। তাও আবার সব সেন্টারে নৌকা পাস করলেও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানীর নিজ ভোট দেয়া সেন্টারে ফেল করেন আওয়ামী লীগের প্রার্থী আমির হোসেন আমিন। অথচ আওয়ামী লীগের নৌকা ফুটো করা আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সাইদুর রহমান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানীর ছোট ভাই শরিফুল ইসলামকে আওয়ামী লীগের ব্যানারে সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। এসময় সংবর্বধনা অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, তানোর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র ইমরুল হক।
যা উপজেলা আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মী সমর্থকরা কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম রাব্বানী ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুনের এমন জঘন্য চাঞ্চল্যকর সংবর্ধনার অনুষ্ঠান। তৃণমূল আওয়ামী লীগের বেশকিছু নেতা জানান, এরা দল করতে আসেনি, এরা আওয়ামী লীগ দল করার নামে বিভিন্ন দলের নেতাকর্মীদের সাথে আঁতাত করে আওয়ামী লীগের মধ্যে দিধাদ্বন্দ্ব সৃষ্টি করে নিজের আখের গোছাতে এসেছে। তা না হলে দলের নির্দেশ অমান্য করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়ে সে কি ভাবে নিজ দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে তার অনুগতদের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে দাঁড় করান বলে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে তাকে আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কারের দাবি জানিয়েছেন তৃণমূল নেতাকর্মীরা।
Facebook Comments

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২০ দৈনিক শিরোমনি