1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১০:৫৭ অপরাহ্ন

সিলেটে সাতকড়া দিয়ে গরুর মাংস ভুনা

রিপোর্টার
  • আপডেট : শুক্রবার, ৯ জুলাই, ২০২১

অনলাইন # সিলেটের ঐতিহ্যবাহী বহু খাবারের মধ্যে একটি হলো সাতকড়া দিয়ে গরুর মাংস ভুনা। সাতকড়া দিয়ে গরুর মাংস রান্না করলে স্বাদ হয় একবারেই আলাদা। এছাড়া সাতকড়া দিয়ে তৈরি করা হয় মজাদার আচার।
সাতকড়া একটি লেবুজাতীয় ফল। টক-মিষ্টি স্বাদের ফলটি ঘ্রাণেও অনন্য। এই ফল বা সবজিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি, ক্যালসিয়াম ও ফসফরাস। শুধু গরুর মাংশই নয়, বড়মাছ দিয়েও সাতকড়া রান্না করা হয়।
শৌখিন পরিবারের সদস্যদের রসনা বিলাসে সাতকড়ার রয়েছে ব্যাপক চাহিদা। সিলেট থেকেই দেশের অন্যান্য জেলায় সাতকড়া সরবরাহ করা হয়। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, মধ্যপ্রাচ্যে চাকরি ও ব্যবসার জন্য বসবাসরত প্রবাসীরা কাঁচা অথবা রোদে শুকিয়ে সাতকড়া নিয়ে যান প্রবাসে।
বর্তমানে সিলেট বিভাগের বিভিন্ন উপজেলায় বিশেষ করে পাহাড়ি অঞ্চলে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সাতকড়া চাষ হচ্ছে। আঠারো শতকে সিলেটের সীমান্তের ওপারে ভারতের আসাম রাজ্যে ব্যাপকভাবে এটি চাষ হতো। উনিশ শতকের গোড়ার দিকে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে সাতকড়া চাষ শুরু হয় সিলেটের পাহাড়ি এলাকায়। কমলালেবুর মতোই সাতকড়া গাছ আকারে লম্বা ও বড় হয়।
বর্তমানে মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সিলেট জেলার পাহাড়ি অঞ্চলে সাতকড়া চাষ হয়ে থাকে। যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও মধ্যপ্রাচ্যের বাঙালি পরিবারে ঠাঁই করে নেয়ার কারণে বর্তমানে এ ফলটির বাজারমূল্য বেড়ে গেছে।
সিলেট অঞ্চলের শহর থেকে প্রত্যন্ত গ্রাম পর্যন্ত এ ফলটির ব্যাপক কদর। সিলেটিদের কাছে সাতকড়া যেন এক অমৃত। বর্তমানে ‘পাতলা’ ও ‘ছোলা’ নামে দু’ ধরনের সাতকড়া বাজারে পাওয়া যায়। রান্নার উপাদান ছাড়াও এটি চাষাবাদের খরচ কম এবং এর উচ্চমূল্যের কারণে সাতকড়া চাষে আগ্রহী হয়ে উঠেছেন অনেকেই।
কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, সাতকড়া যে শুধু সুস্বাদু তরকারি ও টক তা নয়। এ ফলটি জনস্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী। বাত, শিরা-উপশিরা ব্যথায় যারা ভুগছেন তারা ‘সাতকড়া’ খেলে এসব রোগ থেকে উপশম পেতে পারেন।
সিলেট অঞ্চলে অতিথি আপ্যায়নে সাতকড়া অদ্বিতীয়। ভারতের আসাম থেকে এদেশে এসে সাতকড়া প্রায় তিন কোটি সিলেটির প্রিয় খাবারে পরিণত হয়েছে। বর্তমানে সিলেট অঞ্চলের অনেক স্থানেই বাণিজ্যিক ভিত্তিতে সাতকড়া চাষ করে কৃষকরা স্বাবলম্বী হচ্ছেন। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা সিলেটের প্রবাসীদের অন্যতম রসনাবিলাসের উপসঙ্গ সাতকড়া প্রচুর পরিমাণে বিদেশে রফতানি হচ্ছে। ইউরোপ-আমেরিকাসহ মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন বাজারে সাতকড়া পাওয়া যায়। উপযুক্ত পৃষ্ঠপোষকতা পেলে এটি দেশের অন্যতম অর্থকরী ফসল হয়ে ওঠতে পারে।
এবার জেনে নেয়া যাক সাতকড়া দিয়ে গরুর মাংস ভুনা ও আচার তৈরির রেসিপি।

Facebook Comments
১৩ views

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি