1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০৭:০২ অপরাহ্ন

যুক্তরাষ্ট্রে করোনার প্রথম টিকা নিলেন নার্স সান্ড্রা

রিপোর্টার
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম দফায় ফাইজার-বায়োএনটেকের কোভিড-১৯ টিকা দেওয়া শুরু হয়েছে। নিউইয়র্কের কুইন্সে ‘লং আইল্যান্ড জুইশ মেডিকেল সেন্টার’ হাসপাতালে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রের (আইসিইউ) এক কৃষ্ণাঙ্গ নার্স সান্ড্রা লিন্ডসকে টিকার প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া অন্যদের টিকা দেয়ার লক্ষ্যে ৫০টি রাজ্যে ফাইজার-বায়োএনটেকের ৩০ লাখ সরবরাহ করা হয়েছে।

বিবিসি জানায়, যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণ এখনো ঊর্ধ্বমুখী। পুরো ডিসেম্বর এ অবস্থা অব্যাহত থাকার আশঙ্কা করে শুক্রবার বিশেষজ্ঞরা টিকার জরুরি অনুমোদন দেন। এর পর শনিবার সরকারিভাবে যুক্তরাষ্ট্রে ফাইজার-বায়োএনটেকের করোনা ভ্যাকসিনের জরুরি ব্যকহারের ছাড়পত্র দেয় খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন বিভাগ (এফডিএ)।

এর পর সোমবার টিকা দেয়া শুরু হয় যুক্তরাষ্ট্রে। আর প্রথম টিকাটি নেন নিউইয়র্কের লং আইল্যান্ড জিউস মেডিকেল সেন্টারের আইসিইউয়ের নার্স সান্ড্রা লিন্ডসে। তার এই টিকা নেয়ার দৃশ্য ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ গণমাধ্যমে। নিউইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুয়োমো টুইটারে টিকা দেয়ার ছবি প্রকাশ করেন।

এ ছাড়া প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প টিকা শুরুর বিষয়টি টুইটারে জানান। তিনি বলেন, ‘প্রথম টিকা দেয়া হয়েছে। শুভ কামনা যুক্তরাষ্ট্র, শুভ কামনা বিশ্বের সবার জন্য।’

এদিকে প্রথম টিকা নেয়ার সুখকর অনুভূতি জানিয়েছেন সান্ড্রা লিন্ডসে। তিনি বলেন, ‘আমার মনে হয়েছে সুস্থ হয়ে যাচ্ছি। অন্য যেকোনো টিকা নেয়ার অনুভূতির চেয়ে কোনো ভিন্নতা ছিল না। আমি মনে করি, ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ সময় শেষ হওয়ার শুরু হলো আজ। সবাইকে বলতে চাই, এই টিকা নিরাপদ। আমরা সবাই মহামারির মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। সুতরাং সবার এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করা উচিত।’

সোমবার যুক্তষ্ট্রে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা তিন লাখ ছাড়িয়েছে। এদিন থেকেই শুরু হয়েছে টিকা কর্মসূচি। আগামী এপ্রিলের মধ্যে দেশটিতে ১০০ মিলিয়ন মানুষকে টিকা দেয়া হবে বলে লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

Facebook Comments
২ views

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি