1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:২৯ অপরাহ্ন

না ফেরার দেশে রেফারি আবদুল আজীজ

রিপোর্টার
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর, ২০২০

না ফেরার দেশে রেফারি আবদুল আজীজ

স্পোর্টস ডেস্ক :
দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় তিনি ছিলেন হাসপাতালে। ছিলেন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে যাচ্ছিলেন গত দুই সপ্তাহেরও বেশি সময়। শেষ পর্যন্ত হেরে গেলেন সাবেক ফিফা রেফারি আবদুল আজীজ।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে আজ মঙ্গলবার বিকেল পৌনে চারটায় শেষ নিশ্বাঃস ত্যাগ করেন বাংলাদেশের সাবেক জনপ্রিয় এই রেফারি। আবদুল আজীজের কন্যা মাকসুদা আজীজ জানিয়েছেন এ তথ্য।

গত ১২ অক্টোবর হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হলে দ্রুত আবদুল আজীজকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। এরপর গত প্রায় দুই সপ্তাহ ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে। অবশেষে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

আবদুল আজীজ বাংলাদেশের ফুটবলের একজন জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। তিনি ১৯৭৪ সালে ৩০ টাকা পারিশ্রমিকে সহকারী রেফারি হিসেবে প্রথম ফুটবল ম্যাচ পরিচালনা করেন।

প্রথম বাঁশি হাতে নিয়েছিলেন (পূর্ণাঙ্গ রেফারি) ১৯৭৫ সালে ব্রাদার্স ও ঢাকা ওয়ান্ডারার্সের ম্যাচে। ২০০০ সালে অবসর নেয়ার আগে তিনি ফিফা রেফারি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন ১৯৮১ সাল থেকে ১৯৯১ সাল পর্যন্ত।

২৮ বছর বয়সে ফিফা রেফারি হয়েছিলেন। তিনি ছিলেন ওই সময় সর্বকনিষ্ঠ ফিফা রেফারি। বিশ্বকাপ বাছাই, অলিম্পিক বাছাই, ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি গেমসসহ ২৮টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ পরিচালনা করেছেন।

ঘরোয়া ফুটবলে তার চালানো ম্যাচের সংখ্যা পাঁচ শতাধিক। তিনি অগ্রণী ব্যাংক ও ইস্কাটন সবুজ সংঘের কোচের দায়িত্বও পালন করেছেন। তার কোচিংয়ে অগ্রণী ব্যাংক ফুটবল দল প্রথম বিভাগ থেকে প্রিমিয়ার লিগে উঠেছিল।

Facebook Comments
১ view

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি