1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ০৮:৪৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
গোপালপুরে সন্তানকে মেরে বিষপানে বাবা-মায়ের আত্মহত্যার চেষ্টা  দক্ষিণ আইচায় স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ঊষার আলো নতুন কমিটি গঠন  হেমনগরে বর্ধিত সভায় দোয়াত-কলম প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের ঢল অভিযোগের মধ্যেই শেষ হলো কালকিনি উপজেলা নির্বাচন খুলনা বিভাগীয় শ্রম পরিচালকের হুগলি বিস্কুট কোম্পানি পরিদর্শন গোপালপুরে নির্যাতনে স্ত্রী মৃত্যু, স্বামী আটক হত্যা মামলায় জয়পুরহাটে ৩ জনের যাবজ্জীবন গোয়ালন্দে সাংবাদিকদের সাথে মোস্তফা মুন্সী’র মতবিনিময় সভা জটিলতা কাটিয়ে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় উপজেলা পরিষদ ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচিত জামী কমরেড রনোর মৃত্যুতে ৫ দলীয় বাম জোটের শোক প্রকাশ

ধামরাইয়ে কপি-পেস্ট এজাহারে একরাতে ৫ মামলা

রেদোয়ান হাসান সাভার,ঢাকা প্রতিনিধি দৈনিক শিরোমণিঃ
  • আপডেট : শনিবার, ৭ আগস্ট, ২০২১
রেদোয়ান হাসান সাভার,ঢাকা প্রতিনিধি দৈনিক শিরোমণিঃ
ঢাকার ধামরাইয়ে আবাসন প্রকল্পের বিরুদ্ধে একই রকম এজাহার ও একই আসামির বিরুদ্ধে ‘কপি-পেস্ট’ করে একরাতে ৫ মামলা দায়ের করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলে ওই প্রকল্পের ১১ জন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে আটকের প্রায় ৭-৮ ঘণ্টা পর কর্তৃপক্ষের শীর্ষ কর্মকর্তাসহ ১৭ জনের নামে আলাদা ৫টি মামলা দায়ের করা হয়। এসব মামলার বাদী করা হয়েছে ওই প্রকল্পের বালু ভরাট সহ অন্যন্য কার্যক্রম পরিচালনায় বাঁধা দেয়া মামলার আসামির পরিবারের সদস্যদেরকে।ঢাকার ধামরাই থানায় গত ৩ আগস্ট ঘটেছে এমন ঘটনা। যেখানে মাত্র ৩ দিন আগেই হত্যা চেষ্টা মামলার ৬ আসামীকে ধরতে ব্যর্থ হয় থানা পুলিশ। সেখানে মাত্র ৩ দিনের ব্যবধানেই আসামীদের পরিবারের সদস্যদের দেয়া মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে প্রকল্পের ১১ কর্মকর্তা-কর্মচারীকে। জানা যায়, কয়েক বছর আগে ঢাকার ধামরাইয়ের কুল্লা ইউনিয়নে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষক ও এলামনাই  এক ফসলি জমিতে বসবাসের জন্য নিরাপদ একটি আধুনিক আবাসন প্রকল্প গড়ে তুলতে জমি ক্রয় করে আসছে।এ কাজে আকসির নগর লিমিটেড তাদের সহযোগিতা করছে। সম্প্রতি জমি ভরাটে বালু ফেলা শুরু হলে বালু ভরাটের  চুক্তি নেওয়ার প্রস্তাব দেন স্থানীয় বদরুল সরদার, সাইদুর রহমানসহ ৫-৬ জন ব্যক্তি। তবে কোম্পানি সামাজিক উন্নয়নের স্বার্থে  স্থানীয় জমি বিক্রেতাদের প্রায় ৪০০ পরিবারের সদস্যদের সেই চুক্তি করে  দেয়ায় বিরোধিতা শুরু করে ওই চক্রটি। কেনা জমিতে ঢুকতে গেলে বাঁধা দেয়া, মারধর করার মত ঘটনা ঘটায় ওই চক্র ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।চক্রটির বিরুদ্ধে রয়েছে নানা অভিযোগ। সাভার, ধামরাইয়ে তাদের বিরুদ্ধে হত্যাচেষ্টাসহ বিভিন্ন ধরণের আধা ডজন করে মামলা রয়েছে। এছাড়া কথিত যে জমি নিয়ে বিরোধের অভিযোগ, সেই জমির কোথাও কোনদিন কোন হিস্যা ছিল না এই চক্রের। এদের কেউ ব্যর্থ রাজনীতিবিদ, কেউ তার সহযোগী কর্মী, কেউ ভবঘুরে, কেউ দূরে থেকে করেন অন্য ব্যবসা। জমির মালিক না হয়েও লাভবান হতে তারা কোম্পানিকে হেনস্তার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত কয়েক বছরে আকসির নগরের ওপর বারবার হামলা করার চেষ্টা করেছে চক্রটি। তাদের অস্থায়ী কার্যালয় ভাংচুর, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ওপর হামলা ও হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে। এছাড়া প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ে লিখিত অভিযোগও দেয় তারা। ভূমি সংক্রান্ত অভিযোগের তদন্ত করে এখানে কোম্পানির ব্যবসায় কোন ত্রুটি নেই বলে রিপোর্ট দেন এসি ল্যান্ড অন্তরা হালদার। এছাড়া জেলা ভূমি কার্যালয় ও আবাসন কতৃপক্ষও তাদের প্রকল্প পরিদর্শন করে। তবুও ওই চক্রকে থামানো যায়নি।অনুসন্ধানে জানা যায়, একটি মামলার বাদী হয়েছেন জিয়াসমিন আক্তার নামে এক নারী। তিনি আকসির নগরের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠা চক্রের মূল হোতা বদরুল সরদার ওরফে খাস বধু । তিনি অত্র ইউনিয়নের সাবেক যুবদল নেতা। আগে তিনি ধামরাই সহকারী ভূমি কার্যালয়ে খারিজের দালালী করত। এখন দৃশ্যমান কোন কাজ না করেও যিনি ঘুরে বেড়ান প্রাইভেটকারে। জানা যায়, বালু ব্যবসা করতে চাওয়ার মূল হোতা তিনি। কোম্পানির ব্যবসা না করতে পেরে এলাকার মানুষদের ক্ষেপিয়ে তুলে ফায়দা নেয়ার চেষ্টা করেন তিনি। এ কাজে ব্যবহার করেন কুল্লা ইউনিয়নের বর্তমান জাতীয়াতাবাদী সেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি সাইদুর রহমান ও বিভিন্ন থানার একাধিক মামলার আসামী ভঞ্জন রায়কে। গত বছর টেঁটা দিয়ে আকসির নগরের এক গাড়ি চালকের ওপর হামলা চালান তিনি। চালক গাড়িতে থাকা লাঠি দিয়ে পাল্টা আঘাত করলে পা ভেঙ্গে যায় ভঞ্জনের। ৩ আগস্টে ৫ মামলার দ্বিতীয়টির বাদী হয়েছেন সেই ভঞ্জনের মা সাম দাসি। আরেক মামলায় বাদী হয়েছেন লাভু নামে এক ব্যক্তি। এলাকায় যার পরিচিতি ভবঘুরে হিসেবে।এসব মামলায় প্রতারণা করে জমি দখল (৪০৬, ৪২০, ৫০৬ তারিখ- ১ আগস্ট), হত্যা চেষ্টা ও মাটি চুরি (১৪৩, ৩২৩, ৩০৭, ৩৭৯, ৩৪ তারিখ- ৫ জুন), (১৪৩৪, ৪৪৭, ৪৪৮, ৩২৩, ৩২৫, ৩২৬, ৩৪ তারিখ- ২৪ ফেব্রুয়ারি) হাড় ভাঙ্গা জখম, মারধর, টাকা চুরির অভিযোগ আনা হয়। এছাড়া এসব মামলার ঘটনার দিন, তারিখ ও সময় পেরিয়ে গেছে বহু আগে। সেসময় থানায় কোন লিখিত অভিযোগও হয়নি।সুপ্রীম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার যুবায়ের আহমেদ বলেন, এত রাতে এক ঘন্টার ব্যবধানে একই আসামীদের নামে দায়ের হওয়ার ঘটনা বাংলাদেশে আগে কখনো হয়নি। কপি পেস্ট করে ৫টি মামলাই যেভাবে সাজানো হয়েছে তা হাস্যকর। সবগুলোতে একই আসামী। তিনি আরও বলেন, ‘এমন মামলা যে উদ্যেশ্য প্রণোদিত তা সহজেই বুঝে ওঠা যায়। এজন্য শুনানিতে বিবাদী পক্ষ অনেকটা এগিয়ে থাকেন। আর তদন্তেও যদি বিবাদী না রাজি দেন, তাহলে পুলিশের কাছ থেকে অন্য কোন সংস্থা এটার তদন্তের দায়িত্ব পেতে পারেন। সেক্ষেত্রে ঘটনার সত্যতা না মিললে মামলা দিয়ে হয়রানি করা ও হয়রানিতে সহায়তা করা দুই পক্ষের বিরুদ্ধেই মানহানি মামলা করতে পারবেন বিবাদী পক্ষ।কপি পেস্ট করে মামলা করা হয়েছে এমন বিষয়ে জানতে চাইলে ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) আতিক রহমান বলেন,পুলিশের শীর্ষ এক কর্মকর্তার নির্দেশে এমন হঠাৎ এমন মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে এবিষয়ে এখনই কোন মন্তব্য করবেন না বলে জানিয়েছেন ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মারুফ সরদার।
Facebook Comments
২ views

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি