1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : বরিশাল ব্যুরো প্রধান : বরিশাল ব্যুরো প্রধান
  3. [email protected] : cmlbru :
  4. [email protected] : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান : চট্রগ্রাম ব্যুরো প্রধান
  5. [email protected] : ঢাকা ব্যুরো প্রধান : ঢাকা ব্যুরো প্রধান
  6. [email protected] : স্টাফ রিপোর্টারঃ : স্টাফ রিপোর্টারঃ
  7. [email protected] : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান : ফরিদপুর ব্যুরো প্রধান
  8. [email protected] : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান : সম্রাট শাহ খুলনা ব্যুরো প্রধান
  9. [email protected] : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান : ময়মনসিংহ ব্যুরো প্রধান
  10. [email protected] : আমজাদ হোসেন রাজশাহী ব্যুরো প্রধান : রাজশাহী ব্যুরো প্রধান
  11. [email protected] : রংপুর ব্যুরো প্রধান : রংপুর ব্যুরো প্রধান
  12. [email protected] : রুবেল আহমেদ : রুবেল আহমেদ
মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:২২ অপরাহ্ন

জয়পুরহাটে খেজুরের গুড় তৈরিতে ব্যস্ত গাছিরা

রাশেদুজ্জামান রাশেদ  প্রতিনিধি, জয়পুরহাট
  • আপডেট : শনিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২২
প্রতিনিধি, জয়পুরহাট:ঘাসের ডঙায় শিশির বিন্দু। সকালে চারদিকে হালকা কুয়াশা। এই শিশির, কুয়াশা যেন জানান দিচ্ছে হেমন্ত এসে গেছে। হেমন্তের সকালে জয়পুরহাটে খেজুর রস থেকে সুস্বাদু গুড় তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন গাছিরা। প্রতি বছরের মতোই এ বছরও রস সংগ্রহের জন্য খেজুরগাছ প্রস্তুতের কাজ চলছে। জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের গাছিরা এখন ব্যস্ত রস সংগ্রহে।
জানা গেছে, আসন্ন শীত মৌসুম সামনে রেখে জেলায় খেজুরের রস থেকে গুড় তৈরি করতে রাজশাহী জেলার বাঘামারা এলাকা থেকে এসেছেন অনেকে। তারা এ জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ করেন। এছাড়া প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে গুড় উৎপাদন ও বিপণনের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন স্থানীয় অনেকেই। গাছ তোলার পর এখন রস সংগ্রহের পরিমাণও বাড়ছে। আর গাছিদের উৎপাদিত গুড় ব্যবসায়ীদের হাত ঘুরে পরিবহনের মাধ্যমে জয়পুরহাট থেকে দেশের নানা প্রান্তে পৌঁছে যাচ্ছে।
খেজুরগাছ থেকে রস সংগ্রহ করে গুড় তৈরী। এটি নতুন কোনো ঘটনা নয় আবহমান গ্রামবাংলার ঐতিহ্য। পূর্বপুরুষদের ঐতিহ্য ধরে রাখতে শীতের সকালে সূর্য যখন মিটমিট করে আলো ছড়ায় তার আগেই গাছিরা বেরিয়ে পড়ছেন খেজুরের রস সংগ্রহে।
এরপর সংগৃহীত রস জ্বাল দিয়ে শুরু হয় গুড় তৈরির প্রক্রিয়া। এরপর সুস্বাদু পাটালি ও লালি গুড় বিক্রি করে চাঙ্গা হয় গ্রামীণ অর্থনীতির চাকা। শীতের এ মৌসুমে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে গুড় উৎপাদন ও বিপণনের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন জেলার অনেক মানুষ। ঋতুর পালাবদলে জয়পুরহাটের পাঁচবিবি, ক্ষেতলাল, কালাই, আক্কেলপুর সদর উপজেলায় এমন দৃশ্য এখন নিত্যদিনের ঘটনা। ভালো দাম পেতে গাছিরাও রস থেকে ভালো মানের গুড় তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।
খেজুরের রস সংগ্রহকারী হেলাল হোসেন জানান, এ জেলার বিভিন্ন গ্রাম থেকে খেজুর গাছ থেকে রস সংগ্রহ করে গুড় তৈরী করি। আর প্রতি গাছ থেকে ৩ থেকে ৪ কেজি খেজুরের রস সংগ্রহ করতে পারি। প্রতি কেজি ডিকা গুড়ের দাম ৩০০ টাকা দরে বাজারে বিক্রি করি।
গুড় কিনতে আসা আমজাদ মন্ডল জানান, এখানে নির্ভেজাল খেজুরের গুড় পাওয়া যায়। তাই কয়েক কেজি গুড় কিনতে এসেছি। তবে গত বছরের চেয়ে এবারের গুড়ের দাম বেশি। তবুও ভালো গুড় বিধায় কিনতেছি।
জেলা বিপণন কর্মকর্তা কার্যালয়ের মাঠ ও বাজার পরিদর্শক মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, বাজারে কেউ ভেজাল গুড় কিংবা অতিরিক্ত মূল্যে গুড় বিক্রি করতে না পারে তার জন্য আমাদের পক্ষ থেকে নিয়মিত বাজার মনিটরিং করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে জেলা কৃষি উপপরিচালক মোঃ শফিকুল ইসলাম জানায়, জয়পুরহাট জেলার পাঁচটি উপজেলায় ১০ হাজার খেজুর গাছ থেকে প্রতিদিন ২ হাজার ৫০০ কেজি খেজুর গুড় উৎপাদন করা হচ্ছে। খেজুর গাছের জন্য বাড়তি কোনো পরিচর্যার প্রয়োজন হয় না বলে কৃষি বিভাগ কৃষকদের বাড়ির আশপাশ, জমির আইল, পুকুরপাড় এবং সড়কের ধারে খেজুর গাছ লাগানোর পরামর্শ দেওয়া হয়। পরিত্যক্ত জমিতে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে খেজুর বাগান গড়ে তোলা হলে কৃষকেরা লাভবান হবেন।
Facebook Comments
২ views

Please Share This Post in Your Social Media

এই বিভাগের আরো সংবাদ
© ২০২২ দৈনিক শিরোমনি