খুলশীতে এটিএম বুথে পানি পেয়ে খুশি গ্রাহক

আব্দুল করিম, চট্রগ্রাম জেলা প্রতিনিধি

ওয়াসা প্রতিলিটার পানির মূল্য ৬০ পয়সা মার্চে চালু হবে আরো ৩টি। নগরীর উত্তর খুলশী ১নং রোডের মুখে মাস খানেক আগে বুথটি চালু করেছে চট্টগ্রাম ওয়াসা। এতে প্রতিদিনই পানি বিক্রির পরিমাণ বাড়ছে। আগামী মার্চে আরো তিনটি বুথ চালু করতে কাজ করছে সরকারি সেবা সংস্থাটি।ওয়াসা সূত্র জানায়, নগরীর আগ্রাবাদে (ওয়াসা মড-১ কার্যালয়ে), হালিশহর নয়াবাজার এলাকা ও ফিরোজশাহ কলোনিতে আরো তিনটি ওয়াসার এটিএম বুথ চালু করতে যাচ্ছে ওয়াসা। আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ তিনটি বুথ চালু করা হবে।
নগরীতে এটিএম বুথের মাধ্যমে পানি সরবরাহ করার সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে চট্টগ্রাম ওয়াসা। বর্তমানে খুলশী বুথ থেকে পানি সরবরাহ পাচ্ছে গ্রাহকরা। এ জন্য প্রাথমিক পর্যায়ে নগরীর চারটি স্থানে বুথ তৈরির কাজ শুরু করা হয়। এগুলো সম্পন্ন হওয়ার পর গ্রাহকদের চাহিদা বিবেচনায় নগরীতে আরো এটিএম বুথ তৈরি করবে সেবা সংস্থাটি।ওয়াসা সূত্র জানায়, মাস খানেক আগে নগরীর খুলশী আবাসিক এলাকায় ১ নং রোডে ওয়াসার পাম্পহাউসের সামনে একটি এটিএম বুথ চালু করে ওয়াসা। ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ আনুষ্ঠানিকভাবে এটি উদ্বোধন করেন। বর্তমানে দুই শিফটে এ বুথ থেকে পানি বিক্রি করা হচ্ছে। গ্রাহকরা নির্ধারিত স্থান থেকে ২০০ টাকার মূল্যে একটি কার্ড ক্রয় করবে। এরপর প্রতি লিটার ৬০ পয়সা মূল্যে পানি ক্রয় করে নিয়ে যাচ্ছে।
সূত্র আরো জানায়, নিজেদের উৎপাদিত পানি বাজারে আনার লক্ষ্যে দুটি প্রকল্প গ্রহণ করে চট্টগ্রাম ওয়াসা। এরমধ্যে প্রথম প্রকল্পটি হচ্ছে নগরীর বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে এটিএম বুথের মাধ্যমে গ্রাহকদের মাঝে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ এবং দ্বিতীয়টি বোতলজাত মিনারেল পানি বাজারজাত করা। প্রাথমিক পর্যায়ে খুলশী ওয়াসার পাম্পহাউস সংলগ্ন স্থানে এটিএম বুথ তৈরি করা হয়েছে। বর্তমানে হালিশহর নয়াবাজার এলাকা, ফিরোজশাহ কলোনি ও আগ্রাবাদ ওয়াসা (মড-১) অফিসের সামনে বুথ তৈরি করা হচ্ছে। এগুলো সফল হলে পুরো নগরী জুড়ে পর্যায়ক্রমে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে ওয়াসা।
ড্রিংক ওয়েল নামের আমেরিকার একটি কোম্পানি ‘ড্রিংকিং ওয়েল ওয়াটার এটিএম’ নামের পাইলট প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। এটি বাস্তবায়ন হলে নগরবাসীর বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মেটাতে বুথ থেকে সারাক্ষণ পানি পাবে। এটিএম বুথ থেকে লোকজন বাসা-বাড়ি এবং হোটেল-রেস্টুরেন্টের জন্য পানি কিনতে পারবে। পাশাপাশি সাধারণ পথচারীরাও যাতে পানি পান করতে পারে এজন্য বুথে ছোট্ট গ্লাস রাখা হবে। বুথের কর্মকর্তার কাছে থাকা কার্ড দিয়ে এক গ্লাস পানি কিনে পান করে নির্দিষ্ট দাম পরিশোধ করতে পারবে।প্রকল্প সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও ওয়াসার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘আমেরিকান ড্রিংক ওয়েল নামের একটি কোম্পানি ‘ড্রিংকিং ওয়েল ওয়াটার এটিএম’ নামের পাইলট প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে নগরীর খুলশী এলাকায় একটি এটিএম বুথ চালু করা হয়েছে। ওই বুথ থেকে গ্রাহকরা ৬০ পয়সা মূল্যে প্রতি লিটার পানি ক্রয়ের সুযোগ পাচ্ছে। গ্রাহকদের সুবিধার্থে এটি ২৪ ঘণ্টা খোলা রাখার পরিকল্পনা রয়েছে। তবে বর্তমানে দুই শিফটে প্রতিদিন প্রায় দুই হাজার লিটার পানি বিক্রি করা হচ্ছে।প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘ঢাকা ওয়াসাতেও এ কোম্পানি কাজ করছে।
ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফজলুল্লাহ বলেন, ‘নগরীর উত্তর খুলশী ১ নং রোডের মুখে ওয়াসার এটিএম বুথ চালু করা হয়েছে। এটিতে গ্রাহকদের বেশ সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। আগামী এক মাসের মধ্যে নগরীর তিনটি স্থানে আরো তিনটি ওয়াটার বুথ চালু করা হবে। একই সাথে বোতলজাত মিনারেল ওয়াটার বাজারজাত করারও উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। কর্ণফুলী পানি সরবরাহ প্রকল্প-২ এ বোতলজাত পানি সরবরাহ প্রকল্পটিও রয়েছে।

Photo Gallery

সম্পাদক ও প্রকাশক : সাহিদুর রহমান, অফিস : ৪৫, তোপখানা রোড (নীচতলা)পল্টন মোড়, ট্রপিকানা টাওয়ার, ঢাকা-১০০০।
অফিস সেল ফোন : ০১৯১১-৭৩৫৫৩৩। ই-মেইল : shiromonimedia@gmail.com,ওয়েব : www.shiromoni.com

Social Widgets powered by AB-WebLog.com.