ড্রোন ইয়েমেন থেকে নয়, ইরান থেকেই এসেছে

সৌদি আরবের তেল খনিতে হামলার বিষয়ে বাড়াবাড়ি না করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে হুঁশিয়ারি দিয়েছে ইরান। বুধবার ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি কূটনৈতিক বার্তার মাধ্যমে বলা হয়, যদি ইরানের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়, ইরান সঙ্গে সঙ্গেই তার জবাব দিবে। ইরানের জাতীয় সংবাদসংস্থা আইআরএনএ (ইরনা) এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

বার্তায় আরও বলা হয়, ভিসা জটিলতার কারণে আগামী সপ্তাহে নিউইয়র্কে হতে যাওয়া জাতিসংঘের সভায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় বসতে পারবেন না ইরান।

শনিবার সৌদির দুইটি তেলক্ষেত্রে হুতি বাহিনীর ড্রোন হামলাকে কেন্দ্র করে ইরানকে দোষারোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। অভিযোগ উঠেছে, ইয়েমেন ভিত্তিক হুতি জঙ্গিদের সরাসরি মদদ দেয় ইরান সরকার। কিন্তু ইরানের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাবরই এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছিল। সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা বিভাগ দাবি করে, হামলাকারী ড্রোন দুইটি ইয়েমেন থেকে নয় বরং ইরান থেকেই এসেছে

এদিকে ইরানের অর্থনীতির উপর যুক্তরাষ্ট্রের ক্রমাগত চাপকে ‘অর্থনৈতিক সন্ত্রাসবাদ’ বলে উল্লেখ করেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। বুধবার একটি সংসদীয় সভায় রুহানি বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরব ইরানের উপর সর্বোচ্চ চাপ প্রয়োগ করছে। এমতাবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে কোনো ধরনের আলোচনায় বসা সম্ভব নয়। তাদের অবশ্যই এই অর্থনৈতিক সন্ত্রাসবাদের ইতি টানতে হবে।’

Photo Gallery

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সাহিদুর রহমান,অফিসঃ ২২/১, তোপখানা রোড (৫ম তলা) বাংলাদেশ সচিবালয়ের উত্তর পার্শ্বে, ঢাকা-১০০০।
অফিস সেল ফোনঃ ০১৬১১-৯২০ ৮৫০, ই-মেইলঃ shiromoni67@gmail.com ,ওয়েবঃ www. Shiromoni.com

Social Widgets powered by AB-WebLog.com.