পাশ্চাত্য ধাঁচের পোশাকে শপিং মলে সৌদি নারী

সৌদি আরবের রাস্তায় খোলামেলা পাশ্চাত্য ধাঁচের পোশাক পরে চলাচল করা কঠিন। তারপরেও ক’জন সৌদি নারীর চলাচল ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে।

তাদের মধ্যে একজন হলেন- মাশায়েল আল-জালোদ। সম্প্রতি তিনি সাদা টপসের উপরে কমলা রঙের জ্যাকেট পরেন। সঙ্গে পরেন সাদা ট্রাউজার ও হাই হিল। খোলো চুলে এভাবেই রিয়াদের শপিং মল ঘুরে বেড়িয়েছেন।

৩৩ বছর বয়সী মাশায়েল রিয়াদে একটি সংস্থার মানব সম্পদ বিভাগে কাজ করেন। সেই সঙ্গে নিজের মতো করে চালিয়ে যাচ্ছেন মানবাধিকার রক্ষার লড়াই। রাস্তায় এভাবে তাকে হাঁটতে দেখে পথচারীরা ভেবেছিলেন, তিনি কোনো তারকা হবেন।

টপস পরা মাশায়েল। ছবি: সংগৃহীত

মাশায়েল ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম মেট্রোকে বলেছেন, তিনি স্বাধীনভাবে বাঁচতে চান। তাই এখন বোরকা পরা ছেড়ে দিয়েছেন। এ জন্য তাকে অনেকে বাঁকা চোখে দেখছেন। ফলে ধর্মীয় উগ্রবাদীদের হাতে আক্রমণের শিকার হতে পারেন বলেও জানান মাশায়েল।

তিনি আরো জানান, জুলাইয়ে একবার বোরকা ছাড়া রিয়াদের বকেটি শপিং মলে প্রবেশ করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু সে সময় তাকে সেখানে ঢুকতে দেওয়া হয়নি।

এর আগে মানাহেল আল-ওতাইবি নামে আরেক সৌদি নারী বোরকা ছাড়াই প্রকাশ্যে রাস্তায় চলাচল করেন। গত চার মাস ধরে তিনি রিয়াদে বোরকা ছাড়া চলাফেরা করছেন বলে জানান।

মানাহেল বলেন, স্বাধীনভাবে চলাফেরা করতে চাই। আমি যা পরতে চাই না, সেটা আমাকে কেউ পরাতে পারবে না।

রক্ষণশীল সৌদি আরবের রাস্তায় বের হতে হলে মেয়েদের আবায়া বা বোরখা পরা বাধ্যতামূলক। কিন্তু এই নিয়ম ওই নারীরা না মানায় তাদের ‘বিদ্রোহী’ সৌদি নারী হিসেবে উল্লেখ করছে পাশ্চাত্যের গণমাধ্যম।

এদিকে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সৌদি নারীদের পোশাকের বিধি-বিধান শিথিল করার কথা বলেছিলেন।

Photo Gallery

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সাহিদুর রহমান,অফিসঃ ২২/১, তোপখানা রোড (৫ম তলা) বাংলাদেশ সচিবালয়ের উত্তর পার্শ্বে, ঢাকা-১০০০।
অফিস সেল ফোনঃ ০১৬১১-৯২০ ৮৫০, ই-মেইলঃ shiromoni67@gmail.com ,ওয়েবঃ www. Shiromoni.com

Social Widgets powered by AB-WebLog.com.