চকবাজার ট্রাজেডির দায়ভার স্বীকার করে পদত্যাগ করুন

অনলাইন ডেস্ক ঃ কমরেড এম এ সামাদ, সাধারন সম্পাদক, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (মার্কসবাদী)ও সমন্বয়ক,গনতাতন্ত্রিক বাম ঐক্য, তিনি আজ এক বিবৃতিতে বলেন, পুরান ঢাকায় মানুষের জীবন নিয়ে সরকার ছিনিমিনি খেলছে। ক্যামিকেল কারখানা আর জীবন্ত মানুষের বসবাস একসাথে চলতে পারে না। নিমতলী ট্রাজেডি থেকে শিক্ষা নিয়ে পুরনো ঢাকার অগ্নি-বিস্ফোরন বন্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করলে চকবাজারে আজ ৮০ জন মানুষের লাশ দেখতে হত না। নিকট আত্মীয়দের কাছে লাশ দাফন করতে ২০ হাজার টাকার আর্থিক সহযোগিতা দিয়ে আর টিভিতে-পত্রিকায় শোকবার্তা দিয়ে রাস্ট্রযন্ত্র এই পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের দ্বায়ভার এড়াতে পারেনা। টাকা দিয়ে এসব মানুষের জীবনের মুল্য নির্ধারন করা নির্মম নিষ্ঠুরতা, মানুষের জীবনের বিনিময়ে টাকা দিয়ে ক্ষতি পুরন দিতে চাওয়ার অর্থ হলো নিহত মানুষ গুলোকে চরম অসন্মান করা, গরু ছাগল বা কোন জীবের সাথে তুলনা করা, সরকারের দায়িত্ব দেশের সকল নাগরিকের যান মালের নিরাপত্তা বিধান করা, এক্ষেএে সরকার কোনভাবেই এই ঘটনার দায় এড়াতে পারেন না, নিমতলি-র ট্রাজেডির পর এই সরকারই ঘোষনা দিয়েছিলেন পুরান ঢাকার সকল কারখানা সরিয়ে ফেলা হবে কিন্তু সরকার তাদের সেই অংগীকার পালনে যেহেতু ব্যর্থ হয়েছে কাজেই এই ব্যর্থতার দায় মাথায় নিয়ে জাতির কাছে ক্ষমা চেয়ে পদত্যাগ করা উচিত বলে আমরা মনে করি। আর রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে কোন ক্ষতিপুরন নয় যারা দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন, যারা ঘোষনা দিয়েও এত বছরে আবাসিক এলাকা থেকে কারখানা সরিয়ে নিতে পারেন নি তাদের বাক্তিগত তহবিল থেকে দিতে হবে। অনতিবিলম্বে পুরান ঢাকা থেকে সকল প্রকার রাসায়নিক কারখানা উচ্ছেদ করার জোর দাবি জানাচ্ছি। বার্তা প্রেরক কমরেড এম এ সামাদ সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ( মার্কসবাদী) ও সমন্বয়ক, গনতান্ত্রিক বাম ঐক্য মোবাইল ০১৭১১১৭৪৯৩৬

Photo Gallery

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ সাহিদুর রহমান,অফিসঃ ২২/১, তোপখানা রোড (৫ম তলা) বাংলাদেশ সচিবালয়ের উত্তর পার্শ্বে, ঢাকা-১০০০।
অফিস সেল ফোনঃ ০১৬১১-৯২০ ৮৫০, ই-মেইলঃ shiromoni67@gmail.com ,ওয়েবঃ www. Shiromoni.com

Social Widgets powered by AB-WebLog.com.