প্রথম আলো মামলা, আদালতের বিষয়

অনলাইন ডেস্ক : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, দৈনিক প্রথম আলো সম্পাদকের বিরুদ্ধে যে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে তা ফৌজদারি অপরাধের মামলার কারণে। এর সঙ্গে গণমাধ্যমের স্বাধীনতার কোনো সম্পর্ক নেই।রোববার মন্ত্রী তার মন্ত্রণালয়ে সমসাময়িক বিষয় নিয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশিত কোনো সংবাদ বা বক্তব্যের জন্য এই মামলা হয়নি। ফৌজদারি অপরাধের জন্যই এই মামলা হয়েছে। এটি সম্পূর্ণ আদালতের বিষয়।প্রথম আলো সম্পাদকের বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা বিষয়ে অ্যামেনেস্টি ইন্টারন্যাশনালসহ দেশের ৪৭ বিশিষ্টজনের বিবৃতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এই ৪৭ জন বিশিষ্টজন ছাড়াও দেশে আরও হাজার হাজার বিশিষ্টজন রয়েছেন। তবে অবহেলাজনিত কোনো মৃত্যুর জন্য বা মৃত্যু হওয়ার পর তা যদি লুকানোর অপচেষ্টা হয় অথবা পোস্টমর্টেম ছাড়া দাফন করা হয়, তবে তা নিশ্চয়ই অপরাধের সামিল।

পূজা ও ভোট দুই পবিত্র কাজ

অনলাইন ডেস্ক ঃ   ইসি সচিব বলেন, ‘কমিশন আগেই বলেছে, ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২৯ তারিখ সরস্বতী পূজা। ৩০ তারিখে পূজা নেই। ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি পরীক্ষা। মাঝে সময় একদিনই ৩০ তারিখ, যেদিন নির্বাচন করা যায়। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা উচ্চ আদালতে রিট করেছিল, সেটি খারিজ হয়ে গেছে। কারণ তারা যে যুক্তি উপস্থাপন করেছে, তা তারা প্রতিষ্ঠা করতে পারেনি। আদালত নির্বাচনের নির্ধারিত তারিখটি যুক্তযুক্ত মনে করেছেন, তাই রিটটি খারিজ করে দিয়েছেন।’

ধর্ষণকারীদের ‘ক্রসফায়ারে’ হত্যা করার দাবি সংসদে

ধর্ষণকারীদের ‘ক্রসফায়ারে’ হত্যা করার দাবি জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির (জাপা) দুজন সাংসদ।মঙ্গলবার জাতীয় সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় এই দাবি জানান জাপার সাংসদ কাজী ফিরোজ রশীদ ও মুজিবুল হক।

সরকারদলীয় জ্যেষ্ঠ সাংসদ তোফায়েল আহমেদ এবং অন্য একজন সাংসদ জাপার দুই সাংসদের বক্তব্যকে সমর্থন করেন।অনির্ধারিত আলোচনায় জাপার সাংসদ কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ‘এই মুহূর্তে সমাজকে ধর্ষণমুক্ত করতে হলে “এনকাউন্টার মাস্ট”। ধর্ষককে গুলি করে মারতে হবে। একমাত্র ওষুধ পুলিশ ধরার পর ধর্ষককে গুলি করে মেরে ফেলা।’

ফিরোজ রশীদ আরও বলেন, সাম্প্রতিক কালে ধর্ষণ মহামারি রূপ নিয়েছে। ছাত্রী, শিশু, নারী শ্রমিক, প্রতিবন্ধী নারী ধর্ষণের শিকার হচ্ছেন। কেউ রক্ষা পাচ্ছেন না। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অনেক ‘ক্লুলেস’ ঘটনায়ও ধর্ষককে গ্রেপ্তার করেছে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী মর্মান্তিক ধর্ষণের শিকার হলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ধর্ষণকারীকে গ্রেপ্তার করতে পেরেছে। প্রত্যেক জায়গায় ধর্ষকদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে।

কাজী ফিরোজ রশীদ বলেন, ধর্ষণের ঘটনায় বিচার হয় ১৫ থেকে ২০ বছর পর। মানুষ এটা মনে রাখে না। শাজনীন হত্যার পর ১৬ বছর লেগেছে সেই একটি বিচার করতে। শাজনীনের বাবা এ দেশের স্বনামধন্য একজন শিল্পপতি। তাঁর মেয়ের এই ধর্ষণ হত্যার বিচার নিয়ে কোর্ট–কাছারি করতে করতে ১৬ বছর পার করছেন। একজনের মাত্র ফাঁসি হয়েছে।

এক বাসেই বাংলাদেশ থেকে ভারত যাওয়া যাবে

নাগরিকত্ব আইন এবং জাতীয় নাগরিকত্ব নিবন্ধন নিয়ে বিতর্ক চলছে ভারতে। এ নিয়ে ব্যাপক বিক্ষোভও হয়েছে। এরই মধ্যে বাংলাদেশ থেকে ভারতে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ চালু করা হচ্ছে। ভারতের ইংরেজি দৈনিক দ্য ইকোনমিক টাইমসের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, বঙ্গোপসাগর আঞ্চলিক যোগাযোগের উদ্যোগের অংশ হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। ফলে বৃহস্পতিবার থেকে পশ্চিমবঙ্গের জনপ্রিয় পর্যটন স্পট শিলিগুড়ি ও দার্জিলিংয়ে এক বাসেই বাংলাদেশ থেকে যাতায়াত করা যাবে। নতুন এই সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সীমান্তে যাত্রীদের আর বাস পরিবর্তন করতে হবে না, যা আগে দরকার হতো।

বাংলাদেশ সরকারের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের এক বৈঠকে আঞ্চলিক নেটওয়ার্ক সম্প্রসারণের লক্ষ্যে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যত দ্রুত সম্ভব বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপনের জন্য বৈঠকে তাগিদ দেওয়া হয়।

২০১৫ সালের ১৫ জুন বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত ও নেপাল মোটরযান চুক্তিতে স্বাক্ষর করে। চার দেশের মধ্যে অবাধ পণ্য ও যাত্রী সেবার লক্ষ্যে এ চুক্তি স্বাক্ষর হয়। কিন্তু পরবর্তীতে ভুটান চুক্তি থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেওয়ায় তা থমকে যায়।

বাংলাদেশের সরকারি এক কর্মকর্তা দ্য ইকোনমিক টাইমসকে ফোনে বলেন, ‘ঢাকা-শিলিগুড়ি-গ্যাংটক (সিকিম)-ঢাকা এবং ঢাকা-শিলিগুড়ি-দার্জিলিং-ঢাকা রুটে প্রাথমিকভাবে বাস চালুর পরিকল্পনা করেছে ঢাকা।’

সরকারি এই কর্মকর্তা আরও জানান, ইতোমধ্যে বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সড়কপথে যোগাযোগ রয়েছে। তবে সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা নেই। সীমান্তে পৌঁছে বাস পরিবর্তন করতে হয় যাত্রীদের। কিন্তু নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, যাত্রীদের সীমান্তে আর বাস পরিবর্তন করতে হবে না।

সম্প্রতি নয়াদিল্লি সফরকালে বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক মোটরযান চুক্তি নিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আলোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

দেশের মোট জনসংখ্যার ০.১৭ শতাংশ ভিক্ষুক

অনলাইন ডেস্কঃ  বিভিন্ন জেলার প্রশাসন ও জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের চাহিদাপত্র অনুযায়ী দেশে বর্তমানে দুই লাখ ৫০ হাজার ভিক্ষুক রয়েছে। শতকরা হিসাবে ০.১৭ ভাগ মানুষ ভিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জীবিকা নির্বাহ করে।

সরকারি দলের দিদারুল আলমের এক প্রশ্নের জবাবে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ সোমবার সংসদে এ কথা জানান।
মন্ত্রী জানান, তবে ভিক্ষুকের সংখ্যা নির্ধারণে সমন্বিতভাবে কোনো জরিপ পরিচালিত হয়নি। তারপরও জেলা প্রশাসন ও সমাজকল্যণ কার্যালয় থেকে পাঠানো চাহিদাপত্রের ভিত্তিতে ভিক্ষুক পুনর্বাসনের জন্য মোট ৪৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ চাওয়া হয়। এর বিপরীতে গত অর্থবছরে ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচিতে তিন কোটি টাকা এবং চলতি অর্থবছরে চার কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

Photo Gallery

সম্পাদক ও প্রকাশক : সাহিদুর রহমান, অফিস : ৪৫, তোপখানা রোড (নীচতলা)পল্টন মোড়, ট্রপিকানা টাওয়ার, ঢাকা-১০০০।
অফিস সেল ফোন : ০১৯১১-৭৩৫৫৩৩। ই-মেইল : shiromonimedia@gmail.com,ওয়েব : www.shiromoni.com

Social Widgets powered by AB-WebLog.com.